শুক্রবার | ২২শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দৈনিক পাবলিক বাংলা বিশ্বজুড়ে বাঙলার মুখপত্র
বিশ্বজুড়ে বাঙলার মুখপত্র

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া থেকে এক তরুণীকে উদ্ধার, করলো গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ এরই সাথে আটক -১

রাজু আহমেদ রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধিঃ

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া থেকে এক তরুণীকে  উদ্ধার, করলো গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ এরই সাথে আটক -১

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর গেটের সামনে থেকে এক তরুণীকে উদ্ধার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ। মঙ্গলবার এ ঘটনায় হওয়া মানবপাচার মামলার ১নং আসামীকে গ্রেফতার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আসামী পঞ্চগড় থানার রাজমহল গ্রামের মোঃ জালাল মোল্লার ছেলে মোঃ মনির (২৫)। এ মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, উদ্ধার হওয়া তরুণী সে চলতি বছর স্থানীয় একটি কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেছে। তার মায়ের সাথে কয়েক বছর আগে বাবার ডির্ভোস হলে বাবা পুনরায় বিয়ে করেন। কিছুদিন পর সৎ মা বিভিন্ন অযুহাতে তাকে নির্যাতন করতে থাকে। আটককৃত মনিরের বাড়ি একই উপজেলায়, তার পূর্ব পরিচিত। নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে পরিবারের সমস্যার কথা মনিরকে জানিয়ে চাকুরী করার আগ্রহ প্রকাশ করেন। মনির তাকে পোশাক কারখানায় ভালো বেতনে চাকুরীর আশ্বাস দেন। গত সোমবার (৭ জুন) বিকেলে সাড়ে ৪টার দিকে তরুনী বাসে রওয়ানা করে পরদিন মঙ্গলবার (৮জুন) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ঢাকায় পৌছে ফোনে মনিরকে জানায়। মনির তাকে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে আসতে বলে। বিকেল ৪টার দিকে সে ফেরিতে নদী পাড়ি দিয়ে দৌলতদিয়া ঘাটে পৌছে ফোন করলে মনির পঞ্চগড় সদর উপজেলার বাদুমৃধা গ্রামের শাহাব উদ্দিনের ছেলে মাসুমকে (৩০) সাথে করে ঘাটে যায়। পরবর্তীতে তারা ঘাট এলাকায় ঘোরাফেরার পর রাতে গার্মেন্সে নেওয়ার কথা বলে দৌলতদিয়া যৌনপল্লিতে নিয়ে যায়।

কলেজ শিক্ষার্থী জানান, যৌনপল্লির প্রবেশ পথের এক স্থানে তাকে বসিয়ে রেখে দুইজন ফোনে অজ্ঞাত এক ব্যক্তিকে ডেকে আনে। তাকে রেখে একটু দূরে গিয়ে বার বার কথা বলতে থাকলে বিষয়টি সন্দেহের জন্ম নেয়। কিছুক্ষণ পর যৌনপল্লির প্রবেশ পথ দিয়ে ভিতরে নিয়ে যায়। বিভিন্ন বয়সী মেয়ে ও পুরুষের আনাগোনা থেকে মনে আরো সন্দেহ দেখা দেয়। আবারও দাঁড় করিয়ে রেখে মনির ও মাসুম অজ্ঞাত ব্যক্তির থেকে টাকা নেন। তখন স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পারেন এটা যৌনপল্লি। তারা অজ্ঞাত ব্যক্তিকে সাথে করে জোরপূর্বক ভিতরে নেওয়ার চেষ্টা করলে চিৎকার দেন। এসময় স্থানীয় লোকজন মনিরকে আটক করলে বাকি দুইজন পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ মনিরকে আটক ও তরুনীকে থানায় নিয়ে আসে। রাতেই কলেজ শিক্ষার্থী বাদী হয়ে মানব পাচার আইনে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, পলাতক আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে এবং গ্রেফতারকৃত আসামীকে বুধবার আদালতের মাধ্যমে রাজবাড়ী কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

আপনার মতামত দিন

Posted ১:২৮ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১০ জুন ২০২১

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
ড. সৈয়দ রনো   উপদেষ্টা সম্পাদক   
শাহ্ বোরহান মেহেদী, সম্পাদক ও প্রকাশক
,
ঢাক অফিস :

২২, ইন্দারা রোড (তৃতীয় তলা), ফার্মগেট, তেজগাও, ঢাকা-১২১৫।

নরসিংদী অফিস : পাইকসা মেহেদী ভিলা, ঘোড়াশাল, নরসিংদী। ফোনঃ +8801865610720

ই-মেইল: news@doinikpublicbangla.com