মঙ্গলবার | ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দৈনিক পাবলিক বাংলা বিশ্বজুড়ে বাঙলার মুখপত্র
বিশ্বজুড়ে বাঙলার মুখপত্র

১৩৫৮৫ চাষীর ২১ কোটি টাকার সবজি বিনষ্ট

মানিকগঞ্জে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৩৫ হেক্টর সবজি ক্ষেত

মানিকগঞ্জে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৩৫ হেক্টর সবজি ক্ষেত

ঢাকার পাশের জেলা মানিকগঞ্জ। যাতায়াতে ব্যবস্থা ভালো থাকায় এই জেলার উৎপাদিত সবজির বাজারজাত করা খুবই সহজ। ফলে এ জেলার সবজি চাষীরা দিন দিন সবজি উৎপাদনের দিকে ঝুঁকছে। সবজি আবাদে মানিকগঞ্জের সুনাম রয়েছে দেশজুড়ে। স্থানীয় বাজারের চাহিদা মিটিয়ে রাজধানী ঢাকাসহ আশেপাশের বিভিন্ন অঞ্চলে সরবারহ করা হয় মানিকগঞ্জের সবজি।

 

তবে, চলতি বন্যায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে সবজি ক্ষেতের। বন্যার পানিতে তলিয়ে যায় এক হাজার তিন’শ ৩৫ হেক্টর সবজি ক্ষেত। এতে, ১৩ হাজার পাঁচ’শ ৮৫ জন সবজি চাষীর প্রায় ২০ কোটি ৭০ লাখ টাকার সবজি নষ্ট হয়েছে, এ তথ্য কৃষি অধিদপ্তরের।

 

আর এর ফলে স্থানীয়সহ দেশের বিভিন্ন বাজারে বেড়ে গেছে সবজির চাহিদা ও দাম। বন্যার কারণে বড় ধরণের লোকসান হবে বলে দাবি জেলার সবজি চাষী ও ব্যবসায়ীদের।

 

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ (খামারবাড়ি) অধিদপ্তর তথ্যমতে, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলায় এক হাজার দুই’শ ৫০ হেক্টর, সিংগাইর উপজেলায় এক হাজার আট’শ ২৮ হেক্টর, সাটুরিয়া উপজেলায় চার’শ ৪০ হেক্টর, ঘিওর উপজেলায় দুই’শ ৪৫ হেক্টর, দৌলতপুর উপজেলায় দুই’শ ৫০ হেক্টর, শিবালয় উপজেলায় এক’শ ৭৯ হেক্টর এবং হরিরামপুর উপজেলায় দুই’শ ৫১ হেক্টর জমিতে সবজি চাষ করা হয়।

 

আর বন্যায় মানিকগঞ্জ সদর উপজেলায় ২১ হেক্টর জমির দুই’শ ১০ মেট্রিক টন, সিংগাইর উপজেলায় এক হাজার হেক্টর জমির এক লাখ মেট্রিক টন, সাটুরিয়া উপজেলায় তিন’শ হেক্টর জমির তিন হাজার মেট্রিক টন, ঘিওর উপজেলায় ২ হেক্টর জমির ২০ মেট্রিক টন, শিবালয় উপজেলায় ১০ হেক্টর জমির এক’শ মেট্রিক টন, এবং হরিরামপুর উপজেলায় ২ হেক্টর জমির ২০ মেট্রিক টন সবজি চলতি বন্যার পানিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

 

এছাড়া মানিকগঞ্জ সদর উপজেলায় চার’শ ২০ জন চাষীর ৪২ লাখ টাকা, সিংগাইর উপজেলায় ৮ হাজার জন চাষীর ২০ কোটি টাকা, সাটুরিয়া উপজেলায় ৫ হাজার জন চাষীর ৬ কোটি টাকা, ঘিওর উপজলায় ৩৫ জন চাষীর ৪ লাখ টাকা, শিবালয় উপজেলায় এক’শ ১০ জন চাষীর ২০ লাখ এবং হরিরামপুর উপজেলায় ২০ জন চাষীর ৪ লাখ টাকার সবজির আর্থিক ক্ষতি হয়েছে বলেও জানায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

 

সিংগাইর উপজেলার চারিগ্রাম এলাকার সবজি চাষী মনির হোসেন বলেন, প্রতি বছর প্রায় সাত বিঘা জমিতে সবজির আবাদ করেন তিনি। এবারো ৬ বিঘা জমিতে চালকুমড়া, ধুন্দল, ঢেঁড়শ, বেগুণ ও করলার আবাদ করেন। তবে বন্যার পানিতে সব তলিয়ে যাওয়ায় বড় লোকসান গুণতে হচ্ছে বলে জানান এই তরুণ সবজি চাষী।

আপনার মতামত দিন

Posted ৭:৩২ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৭ আগস্ট ২০২০

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
ড. সৈয়দ রনো   উপদেষ্টা সম্পাদক   
শাহ্ বোরহান মেহেদী, সম্পাদক ও প্রকাশক
,
ঢাক অফিস :

২২, ইন্দারা রোড (তৃতীয় তলা), ফার্মগেট, তেজগাও, ঢাকা-১২১৫।

নরসিংদী অফিস : পাইকসা মেহেদী ভিলা, ঘোড়াশাল, নরসিংদী। ফোনঃ +8801865610720

ই-মেইল: news@doinikpublicbangla.com