মঙ্গলবার | ১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দৈনিক পাবলিক বাংলা বিশ্বজুড়ে বাঙলার মুখপত্র
বিশ্বজুড়ে বাঙলার মুখপত্র

জীবিত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে বিধবা ভাতা কার্ড করে দিলেন চেয়ারম্যান

ফুলবাড়ী(দিনাজপুর) প্রতিনিধি:

জীবিত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে বিধবা ভাতা কার্ড করে দিলেন চেয়ারম্যান

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে জীবিত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে রওশানারা বেগম নামের এক নারীকে বিধবা ভাতা কার্ড দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

উপজেলার ৬নং দৌলতপুর ইউনিয়নের  ৪নং ওয়ার্ডের কুশলপুর গ্রামের আকবর আলী নামে এক ব্যাক্তী জীবিত থাকলেও তাকে কাগজে কলমে মৃত দেখিয়ে তার  স্ত্রী রওশানারা বেগমের নামে বিধবা ভাতার কার্ড দেওয়ায়  এই অভিযোগ উঠে। রওশানারার বিধবা ভাতার কার্ড নং-২৯০৯। ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ মন্ডলের সমর্থক হওয়ায়, স্বামী জীবিত থাকলেও ওই মহিলার নামে বিধবা ভাতায় অন্তর্ভুক্ত করেছেন বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

ফুলবাড়ী উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বিধবা ভাতা পাবেন যাদের স্বামী মারা গেছেন (বিধবা ) বা স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হওয়া নারীরা। ইউনিয়ন পর্যায়ে ওই এলাকার সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যানকে সভাপতি করে বিধবা ভাতার সুবিধাভোগীদের তালিকা প্রণয়নের জন্য কমিটি রয়েছে। সেই কমিটি তালিকা তৈরী করে উপজেলা কমিটিতে পাঠাবেন। এরপর উপজেলা কমিটি তালিকা যাচাই করে অনুমোদনের পর ভাতা কার্ড প্রদান করবেন।

এদিকে স্বামী আকবর আলী জীবিত থাকলেও রওশানারা বেগম কিভাবে বিধবা ভাতার কার্ড পেলেন তা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন আকবর আলীর ছেলের স্ত্রী আলতা বানু।

ভাতার কার্ড গ্রীহিতার ছেলের স্ত্রী আলতা বানু বলেন, দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তার জীবিত শশুরকে মৃত দেখিয়ে তার শাশুড়ীকে বিধবা ভাতার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করেছেন। বিষয়টি নিয়ে এলাকার লোকজন অভিযোগ তুললে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ মন্ডল সেই ভাতার কার্ডটি সংশোধন করবেন বলে জানান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ মন্ডল বলেন,ভূলবশত বয়স্ক ভাতার পরিবর্তে বিধবা ভাতার কার্ড দেওয়া হয়েছে,বিষয়টি ইতিমধ্যে সংশোধন করা হয়েছে বলে তিনি দাবী করেন।

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা  আখতারুজ্জামান জানান, রওশানারা বেগমের স্বামী,আকবর আলীকে ভাতার কার্ডে মৃত দেখানোর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন,বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতারা এই ভাতা পেতে পারে। তবে জীবিত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে ভাতার কার্ড দেয়ার বিষয়টি দুঃখজনক। রওশানারা বেগমের তালিকাভূক্ত হওয়ার বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

এবিষয়ে কথা বললে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার কানিজ আফরোজ (সহকারী কমিশনার ভূমি) জানান, বিষয়টি আমি জানি না,আপনাদের মাধ্যমে জানতে পারলাম। তবে অভিযোগটি তদন্ত করে দেখা হবে। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে । ফুলবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন বলেন, বিষয়টি আমিও অবগত হয়েছি,তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তবে এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটে থাকলে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যানকে এর দায়ভার বহন করতে হবে।

 

 

আপনার মতামত দিন

Posted ১:১৫ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
ড. সৈয়দ রনো   উপদেষ্টা সম্পাদক   
শাহ্ বোরহান মেহেদী, সম্পাদক ও প্রকাশক
,
ঢাক অফিস :

২২, ইন্দারা রোড (তৃতীয় তলা), ফার্মগেট, তেজগাও, ঢাকা-১২১৫।

নরসিংদী অফিস : পাইকসা মেহেদী ভিলা, ঘোড়াশাল, নরসিংদী। ফোনঃ +8801865610720

ই-মেইল: news@doinikpublicbangla.com