সোমবার | ১৭ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দৈনিক পাবলিক বাংলা বিশ্বজুড়ে বাঙলার মুখপত্র
বিশ্বজুড়ে বাঙলার মুখপত্র

জনপ্রিয়তার শীর্ষে ও মনোনয়নে এগিয়ে আলোকবালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এডভোকেট আসাদ উল্লাহ

হাজি জাহিদ, নরসিংদী থেকে :

জনপ্রিয়তার শীর্ষে ও মনোনয়নে এগিয়ে আলোকবালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এডভোকেট আসাদ উল্লাহ

হাজী জাহিদ, নরসিংদী প্রতিনিধি : নরসিংদির সদর উপজেলার আলোকবালী ইউনিয়ন পরিষদের আসন্ন নির্বাচনে জনপ্রিয়তার শীর্ষে ও মনোনয়নে এগিয়ে আছেন বলে জানা যায়, জনগনের মাঝে গ্রহণ যোগ্য জননেতা এডভোকেট আসাদুল্লাহ। এডভোকেট আসাদুল্লাহ নরসিংদী সদরের আলোকবালী ইউনিয়ন এর মুরাদনগর গ্রামের এক মুসলিম সম্ভান্ত্র পরিবারে আওয়ামীলীগ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন, তার পিতা ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ হালিম মোল্লা। এডভোকেট আসাদুল্লাহ উল্লাহর পিতা মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ হালিম মোল্লা ছিলেন আওয়ামী লীগের একজন বঙ্গবন্ধুর আর্শের সৈনিক দলের দূরদিনে কান্ডারী শেখ হাসিনার আস্থা ভাজন ব্যক্তি,এবং এলাকার জনগনের মাঝে গ্রহণ যোগ্য জননেতা,জানা যায় তিনি ১৯৮৩ সাল হইতে ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত আলোকবালী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত সদস্য, সাবেক নরসিংদী সদর উপজেলার কৃষি বিষয়ক সম্পাদক, সাবেক সাংস্কৃতিক সম্পাদক, নরসিংদী সদর উপজেলা,আলোকবালী ইউনিয়ন এর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ২০০৩ হইতে ২০০৭ পর্যন্ত মৃত্যুর অবদি।এডভোকেট আসাদ উল্লাহর ছোট দাদা মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইদ্রিস মোল্লা ছিলেন বঙ্গবন্ধুর সময়ে আলোকবালী ইউনিয়ন এর রিলিফ কমিটির চেয়ারম্যান, সাবেক সহকমান্ডার নরসিংদী জেলা ইউনিট,সাবেক কমান্ডার নরসিংদী সদর ইউনিট কমান্ড, সাবেক সভাপতি নরসিংদী জেলা সমবায় ইউনিয়ন। ১৯৮৪ সাল হইতে ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত ছিলেন আওয়ামী লীগের দূরদিনের কান্ডারী হিসেবে নরসিংদী সদর উপজেলার আওয়ামী লীগের সাধারণত সম্পাদক এ করনেই এডভোকেট আসাদ উল্লাহকে জন্ম সূত্রে আওয়ামী লীগের পরিবারের সন্তান হিসেবে জানে আলোকবালী ইউনিয়ন এর আওয়ামী লীগের নেতা কর্মি ও এলাকার জনগন শুধু তাই নয় নরসিংদী সদর উপজেলার আওয়ামী লীগের ও অঙ্গ সংগঠন এর নেতা কর্মিরা ও তাকে মুল্যায়ন করে আওয়ামী লীগের পরিবারের সন্তান হিসেবে। এলাকায় ঘুরে জানা যায় জনগনের মাঝে গ্রহণ যোগ্য জননেতা এডভোকেট আসাদ উল্লাহর গুণগান, আলোকবালী ইউনিয়ন এর আওয়ামী লীগের ও অঙ্গ সংগঠন এর নেতা কর্মিরা জানান এডভোকেট আসাদ উল্লাহ ছাত্র জীবন থেকেই, বাপ, দাদার রাজনৈতিক ইতিহ্য ধরে রাখতে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন সৈনিক জীবন থেকে ছাত্র লীগের রাজনীতি শুরু করে, তিনি আলোকবালী ইউনিয়ন এর ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন ১৯৯৬ ইং সাল হইতে ২০০৩ পর্যন্ত।লেখা পড়া শেষ করে মানুষ কে আইনি সহায়তা পাশাপাশি রাজনীতি ও ধরে রাখেন, তারই ধারাবাহিকতায় জনগণের অনুরোধে আসন্ন আলোকবালী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হয়েছেন।তিনি নরসিংদী সদর উপজেলার আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন বর্তমানে আলোকবালী ইউনিয়ন এর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এর দায়িত্ব পালন করছেন এবং নরসিংদী সদর উপজেলার আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্যর পদে থেকে সমস্ত দলীয় কর্মসূচী পালন করছেন। বিরোধী দলের সময়ে আন্দোলন করতে গিয়ে বহু হামার মামলার জেল জুলুম হুলিয়া স্বীকার হন, এবং দল প্রতিষ্ঠার জন্য শ্রম মেধা প্রচুর পরিমাণ অর্থ ব্যয় করেন।প্রত্যকটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে গিয়ে বহু টাকা খরচ করেন এবং দলের নেতাকর্মী সমর্থকদের দূর দিনে পাশে থেকে কাজ করেছেন।বহু লোকজন কে সহযোগিতা করেছে অর্থ শ্রম মেধা দিয়ে এবং বিনা টাকায় আইনি সহায়তা দিয়ে। এলাকার প্রত্যকটি ওয়ার্ড ও গ্রামের আওয়ামী লীগের এবং অঙ্গ সংগঠন সহ সাধারণ জনগণের নিকট থেকে জানা যায় জনগনের মাঝে গ্রহণ যোগ্য জননেতা এডভোকেট আসাদ উল্লাহ একজন ভালো মানুষ এবং জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব এবং জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন, তিনি করোনা কালীন সময়ে গরীব অসহায় কর্মহীন জনগনকে খাদ্য সামগ্রী অনুদান দিয়েছেন, মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে পৌঁছে দিয়ে, শিক্ষা খাতে ও তার অবদান চির স্বরনীয় হয়ে থাকবে কারন তিনি, গরীব ছাত্র ছাত্রীরা যেন পড়াশোনা করতে পারে সে জন্য অনেকই স্কুল কলেজের মাদ্রাসার ছাত্র ছাত্রীদের বেতন, বই, খাতা সহ প্রয়োজনীয় সহায়তা করেছেন এখনো চলমান। বহু স্থানে মসজিদ মাদ্রাসা মন্দির এর অনুদান দিয়েছেন সমর্থ অনুযায়ী। গরীব বৃদ্ধ নারী পুরুষ রুগ্ন কর্মহীন লোকজন কে সহযোগিতা করেছে চিকিৎ সেবা দিয়ে, এসমস্ত সমাজের উন্নয়ন মুলক কাজ জেলা হইতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় হাইকমান্ড পর্যন্ত খবর পৌঁছে গেছে বিধায় তিনি মনোনয়নে এগিয়ে আছেন বলে জানা যায়, ইহা ছাড়া ও ইউনিয়ন বাসী ও আওয়ামী লীগের নেতা কর্মিরা নরসিংদী সদর আসনের সাংসদ নজরুল ইসলাম হিরোর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন তিনি যেন আলোকবালী ইউনিয়ন এর আওয়ামী লীগের ও জনগনের কথা ভেবে আসন্ন নির্বাচনে এডভোকেট আসাদ উল্লাহর উপর সুদৃষ্টি দেন এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সহ কেন্দ্রীয় হাইকমান্ড এর নিকট আবেদন জানান এডভোকেট আসাদ উল্লাহকে যেন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দিয়ে নৌকা প্রতিক বরাদ্দ দেওয়া হয়, কারন জনগণ দূর দিনে তাকেই পাশে পায়।আরো জানা যায় জনগনের মাঝে গ্রহণ যোগ্য লোক হিসেবে এডভোকেট আসাদ উল্লাহরই গ্রহণ যোগ্যতা বেশি হিসাবে অন্য কোন প্রার্থীকে নৌকা প্রতিক দিলে ভালো হবেনা নৌকার বিজয় নিশ্চিত হবেনা একমাত্র তাকে দিলেই নৌকার বিজয় শতভাগ সাফল্য অর্জন করবে কারন আলোকবালী ইউনিয়ন এর সর্ব স্তরের জনসাধারণ এর ও আওয়ামী লীগের সর্ব স্তরের নেতা কর্মীরদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী। এডভোকেট আসাদ উল্লাহর সাথে কথা বলে জানা যায় দলীয় উর্ধতন বহু নেতার মতামতের ভিত্তিতে ও মনোনয়ের গ্রীন সিগনাল পেয়ে তিনি নৌকা প্রতিকের শত ভাগ আশাবাদী হয়ে আসন্ন আলোকবালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হয়েছেন। তিনি একজন ভালো মানুষ সুশিক্ষিত পরিচন্ন মেধাবী রাজনৈতিক বীদ,সদাআলাপি মিষ্টি ভাষী নিঃস্বার্থ সমাজ সেবক।সকল ধর্মের সকল বর্নের মানুষের নিকট তিনি একজন জনপ্রিয় লোক।

আপনার মতামত দিন

Posted ৮:৫২ অপরাহ্ণ | শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
ড. সৈয়দ রনো   উপদেষ্টা সম্পাদক   
শাহ্ বোরহান মেহেদী, সম্পাদক ও প্রকাশক
,
ঢাক অফিস :

২২, ইন্দারা রোড (তৃতীয় তলা), ফার্মগেট, তেজগাও, ঢাকা-১২১৫।

নরসিংদী অফিস : পাইকসা মেহেদী ভিলা, ঘোড়াশাল, নরসিংদী। ফোনঃ +8801865610720

ই-মেইল: news@doinikpublicbangla.com