বৃহস্পতিবার | ২০শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দৈনিক পাবলিক বাংলা বিশ্বজুড়ে বাঙলার মুখপত্র
বিশ্বজুড়ে বাঙলার মুখপত্র

ঘোড়াশাল বিদুৎ উন্নয়ন কেন্দ্রে গৃহ বধু নির্যাতের মামলায় স্বামী আটক শশুর শাশুড়ি পলাতক

হাজি জাহিদ, স্ট্যাফ রিপোর্টার :

ঘোড়াশাল বিদুৎ উন্নয়ন কেন্দ্রে গৃহ বধু নির্যাতের মামলায় স্বামী আটক শশুর শাশুড়ি পলাতক

ঘোড়াশাল বিদুৎ উন্নয়ন কেন্দ্রে গৃহ বধু নির্যাতের মামলায় স্বামী আটক শশুর শাশুড়ি পলাতক

হাজী জাহিদ, নরসিংদী থেকে : নরসিংদির পলাশে ঘোড়াশাল বিদুৎ উন্নয়ন কেন্দ্রে গৃহ বধু নির্যাতনের মালায় ১ জন গ্রেফতার অপর ২ জন পলাতক।মামলার বিবরনে ও ঘটনার জানা যায় ঘোড়াশাল বিদুৎ উন্নয়ন কেন্দ্রে আবাসিক বিল্ডং নং পলাশ ১১/২২ বেসেলার বাসা সালমা আক্তার নামে তার স্বামী, শশুড় শাশুড়ি নির্যাতনের স্বীকার হন।

এব্যপারে গৃহ বধু সালমা আক্তার ২২ গ্রামঃ রাজার গাঁও উপজেলাঃ হাজী গঞ্জ জেলঃ চাঁদ পুর নিজে বাদী হয়ে মামলা করে। গৃহ বধু সালমা আক্তার ও তার বোন জানান প্রায় চার বছর আগে আসিফ আল আজাদ ( বাবু)২৮ পিতাঃ আল জাহেদ মাতাঃ মজিদা বেগম গ্রামঃ লাল পুর উপজেলাঃ বেগম গঞ্জ জেলা নোয়াখালী এর সাথে ভালবাসার সম্পর্কে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়।স্বামী বাবু ও তার পিতা ঘোড়াল বিদ্যুৎ কেন্দ্র চাকুরির সুবাদে বিদ্যুৎ কেন্দ্রর কোয়ার্টারে থাকে এবং তাকে নিয়ে ঘর সংসার শুরু করে। তাদের রয়েছে নয় মাসের ১ টি ছেলে সন্তান। কিন্তু বিয়ের কিছু দিন না যেতেই নেমে আসে সংসারে অসান্তি। কারন বাবু নেশাযুক্ত বিধায় নেশার টাকা যোগান দিতে গিয়ে যৌতুকের টাকা দাবি করে। সন্তানের সুখের কথা চিন্তা করে সালামার বাবা মা এ পর্যন্ত প্রায় দুই লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা দেয় এরই মধ্যে বাবু প্রচুর পরিমাণ টাকা ঋণী হয়ে যায় বিভিন্ন সমিতি হইতে ঋন তুলে ঋন পরিষোধ করতে না পারায় সে বিপাকে পড়ে যায় তাই কয় দিন পর পর গৃহ বধু সালমা আক্তারকে নির্যাত করে যৌতুকের টাকার জন্য এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত কালকে আবারও সালামার স্বামী বাবুর সাথে ঝগড়া হয় সালমা আক্তার যৌতুকের টাকা দিতে অস্বীকার করিলে তার স্বামী আসিফ আল আজাদ শশুর আল জাহেদ আলী শাশুড়ী মজিদা বেগম মিলে অনেক মারপিট করে নির্যাতন করে । পরে তার আত্মীয় স্বজনরা তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করে পলাশ থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ বাবুকে গ্রেফতার করে শশুর শাশুড়ি পালিয়ে যায়।এঘটনা সরজমিনে তদন্ত গিয়ে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায় এবং গৃহ বধুকে মুমূর্ষু অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়। এবং বিদ্যুৎ কেন্দ্রর অনেক চাকরিজীবী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলে বিদ্যুৎ কেন্দ্রের এবং এলাকার অনেক জনপ্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যক্তি কয়েক বার আপোষ মিমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছে বিধায় গৃহ বধু সালমা আক্তার মামলা করতে বাধ্য হয় এবং গৃহ বধু সালমা আক্তার জানত না যে তার স্বামী আসিফ আল আজাদ বাবু নেশাযুক্ত। এব্যপারে স্বামী আসিফ আল আজাদ বাবু, শশুর আল জাহেদ আলী, শাশুড়ী মজিদা বেগম, এই তিন জনের নামে নারী নর্যাতনের মামলা হলে বাবুকে পলাশ থানা পুলিশ গ্রেফতার করে নরসিংদী আদালতে প্রেরন করে। শশুর শাশুড়ি পলাতক রয়েছে।

আপনার মতামত দিন

Posted ১:০৮ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৩ আগস্ট ২০২১

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
ড. সৈয়দ রনো   উপদেষ্টা সম্পাদক   
শাহ্ বোরহান মেহেদী, সম্পাদক ও প্রকাশক
,
ঢাক অফিস :

২২, ইন্দারা রোড (তৃতীয় তলা), ফার্মগেট, তেজগাও, ঢাকা-১২১৫।

নরসিংদী অফিস : পাইকসা মেহেদী ভিলা, ঘোড়াশাল, নরসিংদী। ফোনঃ +8801865610720

ই-মেইল: news@doinikpublicbangla.com